1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. protidinershomoy@gmail.com : Showdip : Meherabul Islam সৌদিপ
  3. mamunshohag7300@gmail.com : মামুন সোহাগ : মামুন সোহাগ
  4. nasimriyad24@gmail.com : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৪৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম
বেলকুচিতে পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর সাজ্জাদুল হক রেজার জয় এসিল্যান্ডের প্রচেষ্টায় জনবান্ধবে পরিণত নাগরপুর উপজেলা ভূমি অফিস বেনাপোলে স্বদেশ ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড এর অভিষেক অনুষ্ঠান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন তৃনমূল পর্যায়ে পৌঁছে দিতে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মুকুলের বিশাল কর্মী সমাবেশ আ’লীগের শ্রম ও জনশক্তি উপকমিটির সদস্য হলেন আর্কিটেক্ট নিখিল চন্দ্র গুহ রাত শেষ হলেই বেলকুচি পৌরসভা নির্বাচন নাগরপুরে সড়ক উন্নয়ন কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন নাগরপুরে রোটারী ক্লাবের উদ্যোগে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ ভাঙ্গায় বিট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত বেলকুচি পৌর নির্বাচনে বহিরাদের আতঙ্কে পৌরবাসী 

বেলকুচিতে যৌন হয়রানির মামলায় স্বাক্ষীকে মারধর

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : শুক্রবার, ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
  • ১১১ Time View

সবুজ সরকার স্টার রিপোর্টারঃ
সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে যৌনহয়রানির মামলায় স্বাক্ষীকে বেধরক মারধরের ঘটনা ঘটেছে। স্বাক্ষীকে বেধরক মারধরের ঘটনা ঘটেছে। স্বাক্ষীকে বেধরক মারধরের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারী) বেলকুচি উপজেলার বড়ধুল ইউনিয়নের দিঘুলিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে ঘটনাটি ঘটে। জানা যায়, বেলকুচি থানায় গত ৩ ফেব্রুয়ারী আব্দুল হাই নামে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের নামে যৌনহয়রানির মামলা হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ৭ ফেব্রুয়ারী দিঘুলিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তদন্তের উদ্দেশে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে বালিয়াপাড়া টেকের হাট গ্রামের সাকাত হোসেন (৫০) কে যৌনহয়রানির মামলার বিষয়ে জিজ্ঞাসা (৫০) কে যৌনহয়রানির মামলার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করে। ঘটনাস্থল থেকে তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রত্যাবর্তন করলে পরে তাকে ও তার স্ত্রী হাওয়া বেগম (৪৫) কে বেধরক মারধর করে আব্দুল হাই মাষ্টারের লোকজন। সাকোয়াত হোসেন বর্তমানে বেলকুচি হসপিটালে ভর্তি রয়েছেনন এবং তার স্ত্রী প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ী চলে গেছেন।

এ ব্যাপারে আহত সাকোয়াত হোসেন হাসপাতাল বেডে শুয়ে জানান, আমি দুধ বিক্রী করে বাড়ী ফেরার পথে দিঘুলিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে পুলিশের সাথে দেখা হয়। পুলিশ আমাকে জিজ্ঞেস করে দিঘুলিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের যৌনহয়রানির বিষয়ে আপনি কি জানেন? আমি বলি যে, এ ধরনের একটি ঘটনা আমি শুনেছি। পরে পুলিশ চলে যাওয়ার পর হাই মাষ্টার ও নাসির মেম্বাবের লোকজন আমাকে ও আমার স্ত্রীকে বেধরক মারধর করে।পরে স্থানীয়রা আমাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে। বেলকুচি সদর ইউনিয়নের পরিষদের সদস্য নাসির উদ্দিনের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

বেলকুচি থানা অফিসার ইইনচার্জ (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে আমার জানা নেই তবে অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page