1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০২:৪৪ পূর্বাহ্ন

বিয়ের জন্য অনশন,প্রেমিকের স্বজনদের হামলায় আহত প্রেমিকা হাসপাতালে

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : সোমবার, ৬ এপ্রিল, ২০২০
  • ৪১৩ জন পড়েছেন

এম এ হান্নান,শাহজাদপুর( সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়ীতে অনশনরত প্রেমিকাকে মারপিট করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে প্রেমিকের স্বজনেরা। এ ঘটনা ঘটেছে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার হাবিবুল্লাহনগর ইউনিয়নের রায়পুরা গ্রামে।

সোমবার(৬ এপ্রিল) সকালে রায়পুরা গ্রামের আবুল বাশার বশ্যার ছেলে বেলাল হোসেনকে বিয়ে করার দাবী নিয়ে তার বাড়ীতে আসে পাশ্ববর্তি ডায়া গ্রামের মরহুম ফজু শেখের মেয়ে মোমেনা খাতুন (২০)। এসময় প্রেমিকা মোমেনার উপস্থিতি টের পেয়ে প্রেমিক বেলালকে অন্যত্র সরিয়ে দিয়ে বেলালের পরিবারের সদস্যরা মোমেনাকে ব্যাপক মারপিট করে। প্রেমিক পরিবারের লোকজনের মারপিটে এক পর্যায়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে মোমেনা। পরে মোমেনার স্বজনরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। এর আগে সাংবাদিকদের কাছে প্রেমিকা মোমেনা জানান, বিদেশ প্রবাসী বেলাল গত দেড় বছর আগে দেশে ফিরেই পরিচয় ঘটে মোমেনার সাথে। মোমেনা স্বামী পরিত্যক্ত হয়ে ছোট শিশু সন্তান নিয়ে কিছুদিন বাবার বাড়ী পরে সাভার জিরানী বাজারের একটি গার্মেন্টস্ কারখানায় কর্মরত ছিল। এ সুযোগে মোবাইল ফোনে প্রেমিক বেলাল মোমেনার সাথে গভীর প্রেমের সম্পর্ক হয়। এক পর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বেলাল মোমেনার সাথে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এরই অংশ হিসেবে বেলাল ও মোমেনা গত ৪ এপ্রিল শনিবার সকালে দুজন সাভার জিরানী মোমেনার ভাড়া বাসা বাড়ীতে যায়। বেলাল নিজেকে স্বামী পরিচয় দিলে বাসার মালিকের সন্দেহ হলে তাদের সেখান থেকে বিতাড়িত করে। ঐদিন রাতে কোন উপায় অন্ত না দেখে বেলাল ও মোমেনা ডায়া মোমেনার বাবার বাড়ীতে আসে। এসময় প্রতিবেশীরা বিষয়টি টের পেলে স্থানীয় লোকজন বেলালকে আটক করে। এসময় বেলাল মোমেনাকে বিয়ে করবে বলে প্রতিশ্রুতি দেয়। বিষয়টি বেলালের পরিবার অবগত হলে এক পর্যায়ে স্থানীয় প্রভাবশালী লোকজনের সহায়াতায় গভীর রাতেই কৌশলে বেলালকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।
মোমেনার বিধবা মা শহরবানু সাংবাদিকদের জানান, গত রোববার বিচার দেয়ার কথা থাকলেও কারো পক্ষ থেকে কোন সাড়া না পেয়ে মোমেনা বিয়ের দাবীতে রায়পুরা বেলালের বাড়ীতে গিয়েছিল। কিন্তু বেলালের বাড়ীর লোকজন বর্বরোচিত কায়দায় তার মেয়েকে মেরে রক্তাক্ত করে পাশে ইরি ধান ক্ষেতের পাশে কর্দমাক্ত অবস্থায় ফেলে রাখে বর্তমানে সে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। তিনি বিয়ের নামে ধর্ষনকারী বেলালের উপযুক্ত বিচার কামনা করেন। অপর দিকে প্রেমিক বেলাল আত্নগোপনে যাওয়ায় তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।বেলালের পরিবারের লোকজন প্রেমের বিষয় অস্বীকার করেছেন।এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ বিষয়ে মোমেনার পরিবারের পক্ষ থেকে একটি ধর্ষন মামলার প্রস্তুতি চলছে

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা