1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:১৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
শেখ ফজলুল হক মনির জন্মদিন উপলক্ষে জেসমিন আক্তারের শ্রদ্ধাঞ্জলি বিজয়ের মাস উপলক্ষে ইউসুফ আলী পিন্টুর প্রাণঢালা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের পরবর্তী কাউন্সিলে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মেহরাজ ফাহমী বিজয়ের মাস উপলক্ষে জেসমিন আক্তারের প্রাণঢালা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিচক্ষণতার সহিত সবগুলো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করেছেন: হাসান ইকবাল মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে হাসান ইকবালের শুভেচ্ছা  মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে জেসমিন আক্তারের শুভেচ্ছা বেনাপোলে ভ্যানের ভিতর লুকিয়ে রাখা ৯৪ লাখ টাকার স্বর্ণ উদ্ধার করলো ৪৯ বিজিবি বেনাপোলে ভ্যানের ভিতর লুকিয়ে রাখা ৯৪ লাখ টাকার স্বর্ণ উদ্ধার করলো ৪৯ বিজিবি আরএনবি’র শ্রেষ্ঠ ইন্সপেক্টর হলেন ফিরোজ

কিশোরগঞ্জের মাওলানাদের উদ্যোগে খুব খুশি হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : সোমবার, ২০ এপ্রিল, ২০২০
  • ৭১৬ জন পড়েছেন

ভিডিও কনফারেন্সে কিশোরগঞ্জ জেলার সঙ্গে মতবিনিময়কালে সেখানকার পেশ ইমামের সঙ্গে কথা বলার আগ্রহ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘পেশ ইমাম, তার কাছ থেকে কথা শুনতে চাই। এখানকার শোলাকিয়ায় ঈদের সবচেয়ে বড় জামাত হয়। এবার তো আমরা জামাত করতে পারব না। এবার ঈদের নামাজও তো আমরা করতে পারব না। সেজন্য উনার কাছ থেকে একটু শুনি।’

পরে কিশোরগঞ্জ পুরাতন কালেক্টরেট মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মো. মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘আগামী শুক্রবার রোজার চাঁদ ওঠার সম্ভাবনা রয়েছে। রমজানের চাঁদ ওঠার পরে আপনার নির্দেশনা অনুযায়ী তারাবির নামাজ পড়ব। আপনি যে নির্দেশনা দেবেন, সেই নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা কাজ করব।’

এসময় প্রধানমন্ত্রী সবাইকে তারাবিসহ অন্যান্য নামাজ ঘরে বসে পড়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘আমরা নামাজ পড়ি এটা ঠিক। কিন্তু মসজিদে এখন জমায়েত হওয়া, কে কখন সংক্রামিত হয়ে তার কোনো ঠিক নেই। এ জন্য আমরা বলেছি যে, আমাদের ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে সব জায়গায় গেছে যে, সবাই ঘরে বসে নামাজ পড়বে। আল্লাহ নিশ্চয় ডাক শুনবেন।’

‘প্রত্যেকে ঘরে বসে নামাজ পড়েন, দোয়া করেন, সবাই মিলে দোয়া করেন যে এই করোনা ভাইরাসের হাত থেকে বাংলাদেশের মানুষ যেন বাঁচতে পারে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওই ইমামের কাছ থেকে কিশোরগঞ্জের মাওলানাদের একটি উদ্যোগের কথা শুনে খুব খুশি হয়েছেন।

তখন প্রধানমন্ত্রী ইমামের কাছ থেকে জানতে পারেন, তারা একটি টিম তৈরী করেছে। যে টিম এই করোনায় আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা গেলে তার গোসল থেকে শুরু করে কাফন- দাফনের কাজ সম্পন্ন করে।

প্রধানমন্ত্রী এই কথা শুনে বলেন, আমি খুব খুশি হয়েছি। বাহ এই শিক্ষাই তো আমাদের ধর্মও শেখায়। আপনারা খুব বড় ও মহৎ একটি উদ্যোগ নিয়েছেন। যেখানে সন্তান তার বাবা মাকে ফেলে রেখে যায়। এই সময় এমন উদ্যোগ প্রশংসিত। আমরা আপনাদের সঙ্গে আছি। আপনারা পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নিয়েই যেন কাজগুলো করেন সেদিকে খেয়াল রাখবেন।

প্রধানমন্ত্রী আরো খুশি হন, যখন তিনি শুনতে পান শুধু মুসলমান নয়, সব ধর্মের মানুষের জন্যই এই ব্যবস্থা তারা করেছেন। জেলা প্রশাসককে তাদের সর্বাত্নক সাহায্য করার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

সোমবার (২০ এপ্রিল)  সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে এই ভিডিও কনফারেন্স শুরু হয়।

ভিডিও কনফারেন্সটি সঞ্চালনা করছেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস।

ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী করোনাভাইরাস নিয়ে বিস্তারিত বক্তব্য দেন এবং সংশ্লিষ্ট জেলাগুলোর অবস্থা জানেন।

ভিডিও কনফারেন্সে ঢাকা বিভাগের কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল, গাজীপুর ও মানিকগঞ্জ জেলা এবং ময়মনসিংহ বিভাগের জেলাগুলোর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতার সরাসরি সম্প্রচার করে।

এসময় গণভবন প্রান্তে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া ও প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব ইহসানুল করিম।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা