1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:০৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম
শিল্পী সমিতির আগামী দুই বছ‌রের জন‌্য সভাপতি ও সম্পাদককে অভিনন্দন জানিয়েছেন হাসান ইকবাল বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জার্মানি শাখার উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের ২১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত নড়াইলে অস্ত্র মামলায় ১জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড নড়াইলে হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি ও অপরজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ইতালী আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু তাহেরের মায়ের মৃত্যুতে হাসান ইকবালের শোক ষড়যন্ত্র করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন গুলো কোনভাবেই বন্ধ করতে পারবে না: হাসান ইকবাল নাগরপুরে মাস্ক না পরায় ৯ মামলায় ৭ হাজার ৬শত টাকা জরিমানা নাগরপুরে ৪ কেজি গাঁজাসহ গ্রেপ্তার ১ নাগরপুরে শিশু-কিশোরীদের মাঝে কম্বল বিতরণ নাগরপুরে একতা সাংস্কৃতিক উন্নয়ন সংস্থার শীতবস্ত্র বিতরণ

সিংড়ায় মাঠ থেকে ধান আনতে স্বেচ্ছাশ্রমে ৫০০ মিটার রাস্তা নির্মান

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : শুক্রবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২০
  • ২৮০ জন পড়েছেন

রাজু আহমেদ, সিংড়া:
মাঠ থেকে পাকা ধান কেটে আনার দুর্ভোগ কাটাতে নিজেরাই কোদাল,ডালি নিয়ে বেরিয়ে পড়লো সবাই। এর পর শুরু হলো মাটি কাটা। ২ দিনে একটানা মাটি কেটে তৈরী করে ফেললো রাস্তা। নিজেদের স্বেচ্ছাশ্রমে দুরের মাঠ থেকে পাকা ধান কেটে বাড়ি আনার এই রাস্তা তৈরী করলেন নাটোরের সিংড়া উপজেলার ২ নং ডাহিয়া ইউনিয়নের বড়গ্রামবাসী।

স্থানীয় ৬ নং ওর্য়াড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ শাহ আলমের নেতৃত্বে গত বুধবার শতাধিক স্বেচ্ছা শ্রমিক দিয়ে ২ দিনে বড়গ্রাম দক্ষিন পাড়ার ভদ্রানদীর ব্রীজের এই রাস্তার কাজ সম্পন্ন করা হয়। তবে রাস্তাটি পুনরায় স্থানীয় সরকারের বরাদ্দ নিয়ে উন্নত ও টেকসই করার দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

কৃষক আইয়ুব মোল্লা ও জুলমত সরদার বলেন, প্রায় প্রতিবছরই ভাদাই নদীর আগাম বন্যার পানি এসে দক্ষিন মাঠের ধান সহ সকল প্রকার ফসল নষ্ট হয়ে যায় । তাই নিজেরাই এই রাস্তা করার উদ্যোগ নিয়েছি। রাস্তাটি বড়গ্রাম দিয়ার পাড়া পর্যন্ত সংস্কার করা হলে আমরা দক্ষিণ মাঠের ধান সহ সকল প্রকার ফসল সহজ ভাবে ঘরে তুলতে পারবো।। সেই সাথে জীবন যাত্রার মানও উন্নয়ন হবে।

এই রাস্তার উদ্যোক্তা মোঃ শাহ আলম বলেন, রাস্তা না থাকায় প্রতিবছর আমাদের গ্রামের দক্ষিন মাঠের ধান আনা বড়ই কষ্টকর হয়। ওই মাঠের কথা শুনলে ধান কাটা শ্রমিকরাও যেতে চায় না। প্রতিবছর দিগুন টাকায় শ্রমিক খরচ দিয়ে ধান কেটে ঘরে তুলতে হয়েছে। তাই সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখেই আমরা স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তাটি শুরু করলাম। বাকি কাজ সম্পন্ন করার জন্য স্থানীয় ডাহিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম এম আবুল কালাম ও প্রতিমন্ত্রী আলহাজ এড.জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি মহোদয়ের সহযোগিতা আশা করছি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এম এম আবুল কালাম জানান, ঐ রাস্তার কিছু অংশ আমরা পরিষদ থেকে করে দিয়েছে। প্রতিবছর বন্যার কারনে রাস্তা ভেঙ্গে যায়, কৃষকরা ধান নিতে পারে না। গ্রামবাসি সেচ্ছাশ্রমে যে উদ্যোগ নিয়েছে তা প্রশংসনীয়।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা