1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. nasimriyad24@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  3. wpsupp-user@word.com : wp-needuser : wp-needuser
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০১:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম
মার্চ মাস উপলক্ষে ইতালী আওয়ামী লীগ কাতানিয়া শাখার বার্তা রাজশাহীতে প্রথমবারের মত শুরু হচ্ছে মুসলিম লাইফ স্টাইল এক্সপো-২৪ রাজশাহীর লক্ষীপুরে ওয়ানওয়ে খুলে দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন ভূল্লীতে ঋণের চাপ সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু ঠাকুরগাঁও‌য়ের পু‌লিশ সুপার পেলেন পিপিএম পদক মেয়াদোত্তীর্ণ ভূল্লী প্রেসক্লাবের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা রাজশাহী শাহ্ মখদুম কলেজের শিক্ষক জীবন কুমার ঘোষের পি-এইচ.ডি ডিগ্রী অর্জন ঠাকুরগাঁওয়ে ট্যাপেন্টাডোল ট্যাবলেট সহ দুইজন গ্রেফতার ঠাকুরগাঁওয়ে মন্দিরের ভিত্তি প্রস্তরের উদ্বোধন ফেসবুকে প্রতারণা, ঠাকুরগাঁওয়ে গ্রেফতার যুবক

ঠাকুরগাঁওয়ে “চালের ভাগ চেয়ে মারধর” পুত্রসহ আ.লীগ নেতা জেলহাজতে

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : রবিবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২০
  • ৭৬২ জন পড়েছেন

সুজন ঠাকুরগাঁও  জেলা প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ে দুস্থ-মানুষের জন্য বিতরণ করা ত্রাণের ভাগ না দেওয়ায় এক ইউপি সচিবকে মারধর করা অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা ও তার ছেলেক কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

রোববার সকাল ৮টার দিকে দণ্ডপ্রাপ্ত এ দুইজনকে ঠাকুরগাঁও জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন হরিপুর থানার ওসি মো. আমিরুজ্জামান।

গত শনিবার বিকালে জেলার হরিপুর উপজেলার গেদুড়া ইউনিয়ন পরিষদে এ মারধরের ঘটনা ঘটে।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন-হরিপুর উপজেলার গেদুড়া ইউনিয়নের বাসিন্দা শওকত আলী (৪৫), তিনি হরিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও তার ছেলে রুহুল আমিন (২২)।

গেদুড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া দুস্থ মানুষের জন্য ত্রাণ বিতরণের কার্যক্রম চলছে। গত শনিবার বিকালে ছেলে রুহুল আমিনকে সঙ্গে নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে আসেন আওয়ামী লীগ নেতা শওকত আলী।

এসময় আওয়ামী লীগ নেতা শওকত আলী ও তার ছেলে ত্রাণ কার্যক্রমের ভাগ চেয়ে ইউপি সচিব বাসেদ আলীর সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন।

এক পর্যায়ে শওকত আলী ও তার ছেলে রুহুল আমিন মিলে ইউপি সচিব বাসেদ আলীকে বেধড়ক মারধর শুরু করে।

তিনি জানান, তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি হরিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবদুল করিমকে জানানো হয়। কিছুক্ষণের মধ্যে ইউএনও ইউপি পরিষদ কার্যালয়ে চলে আসেন এবং ভ্রাম্যমাণ আদালত গঠন করেন।

আদালতে অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করেন শওকত আলী ও তার ছেলে রুহুল আমিন। এরপর শওকত আলীকে সাত দিনের ও তার ছেলে রুহুল আমিনকে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শওকত আলীর রাজনৈতিক পরিচয় নিশ্চিত করে হরিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়াউল হাসান বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে অসহায় মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রীর বরাদ্দ দেওয়া ত্রাণ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে বিতরণে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ। শওকত আলীর বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

হরিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে যখন আমরা সবাই দিন-রাত পরিশ্রম করছি, সুষ্ঠুভাবে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করছি। আর তখন একজন ইউপি সচিবকে মারধর করা হবে এটা মেনে নেয়াও যায় না।

অভিযোগের সত্যতা পেয়ে শওকত আলী ও তার ছেলে রুহুল আমীনকে দণ্ডবিধির ১৮৬ ধারায় সরকারি কাজে বাধাদানের অভিযোগে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয় বলে জানান তিনি।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা

%d bloggers like this: