1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. nasimriyad24@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম
১৫ দফা দাবি মেনে নেওয়াই কাভার্ডভ্যান-ট্রাক মালিক-শ্রমিকদের ধর্মঘট প্রত্যাহার নাগরপুরে মাসকলাই বীজ ও সার বিতরণ দূর্গা পুজার শুভেচ্ছা হিসাবে ভারতে প্রথম চালানে ২৩.১৫ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানি ঠাকুরগাঁও বালিয়াতে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে চাষীদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ উদ্বোধন। নড়াইলে হত্যা মামলার প্রধান আসামি ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৩ যুক্তরাষ্ট্র আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় এস, এম, গোলাম রব্বানী চৌধুরী জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অর্জন করায় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন মোঃ ইদ্রিস ফরাজী ঠাকুরগাঁও বালিয়াতে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা পাওয়ায় হাসান ইকবালের শুভেচ্ছা

আটলান্টিক সাগরে ভেসে উঠল বাংলাদেশির জাবেদ ইকবালের লাশ

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই, ২০২০
  • ১৪৮ জন পড়েছেন

হাকিকুল ইসলাম খোকন ,মো :নাসির,হেলাল মাহমুদ,বাপসনিউজ:ছয়দিন পর সাগরে ভেসে উঠল প্রবাসী বাংলাদেশি জাবেদ ইকবালের (২৪) লাশ। পরিবারের সঙ্গে নিউজার্সিতেই থাকতেন তিনি। একটা সময় তার পুরো পরিবার নিউইয়র্কে থাকত। বাড়ি ক্রয় করার পর তারা চলে যান নিউজার্সি। খবর বাপসনিউজ।গত ১২ জুলাই জাবেদ ইকবাল তার ভগ্নিপতি ওসামা, বোন এবং ভাগনীসহ পরিবারের আরও কয়েকজন সদস্য বিকেলে সাগর পাড়ে বেড়াতে গিয়েছিলেন। জাবেদ ইকবাল, তার ভগ্নিপতি ওসামা, তার ভাগনী এবং ছোট বোন সাগরে নেমেছিলেন। তারা কোমর পানি পর্যন্ত নেমে অবস্থান করছিলেন। হঠাৎ করে বিশাল একটি পানির ঢেউ এসে তাদের টেনে নিয়ে যায়।

ভাগনি এবং ছোট বোন নিজেদের রক্ষা করতে পারলেও জাবেদ ইকবাল এবং ওসামা তাদের রক্ষা করতে পারেননি। জাবেদ ইকবাল এবং ওসামা পানির ঢেউর সাথে চলে যান। ওসামাকে বেহুশ অবস্থায় নৌকায় থাকা কিছু মাছ শিকারি উদ্ধার করে। ওই সময় তিনি বেহুশ ছিলেন।

কিন্তু জাবেদ ইকবালকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। জাবেদ ইকবালের হারিয়ে যাওয়ার বিষয়টি তার বড় ভাই নিউজার্সি সাউথ মুনার সভাপতি ইব্রাহিম খলিল পুলিশে রিপোর্ট করেছিলেন। পুলিশ ইকবালের হারিয়ে যাওয়ার বিষয়টি পোস্টার আকারে বিভিন্ন স্থানে ঝুলিয়ে রাখে।

১৯ জুলাই একদল মাছ শিকারি একটি লাশকে সাগরের পাড়ে দেখে এবং পুলিশে কল দেয়। পুলিশ এসে জাবেদ ইকবালের লাশ তুলে নিয়ে যায় এবং ওইদিন দুপুরে তার পরিবারকে খবর দেয়।

পরে তারা চিহ্নিত করেন এটাই জাবেদ ইকবালের লাশ। জাবেদ হারিয়ে যাবার পর মুনার কর্মকর্তারা নিউইয়র্ক থেকে নিউজার্সিতে জাবেদ ইকবালদের বাসায় গিয়েছিলেন। মুনার কর্মকর্তা নাঈম উদ্দিন জানান, পরিবারের তরুণ সদস্যকে হারিয়ে তারা বাকরুদ্ধ। একটি টগবগে তরুণ এভাবে হারিয়ে যাবে তারা তা ভাবতেও পারেনি।

হারিয়ে যাওয়ার ৬ দিন পর জাবেদ ইকবালের আত্মীয়রা মর্গে গিয়ে তার শনাক্ত করে। এদিকে গত ২১ জুলাই জাবেদ ইকবালের নামাজে জানাজা ব্রুকলীনের বায়তুস শরফ মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় ইমামতি করেন মুনার প্রেসিডেন্ট মাওলানা দেলোয়ার হোসেন।

জানাজায় কমিউনিটির সর্বস্তরের লোকজন অংশগ্রহণ করেন। জানাজা শেষে জাবেদ ইকবালের লাশ গ্রেটার নোয়াখালি সোসাইরি লংআইল্যান্ডস্থ ওয়াশিংটর মুসলিম গোরস্তানে দাফন করা হয়। উল্লেখ্য, জাবেদ ইকবালের দেশের বাড়ি নোয়খালির চাটখিলে।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা

You cannot copy content of this page