1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. nasimriyad24@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  3. wpsupp-user@word.com : wp-needuser : wp-needuser
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৭:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
মার্চ মাস উপলক্ষে ইতালী আওয়ামী লীগ কাতানিয়া শাখার বার্তা রাজশাহীতে প্রথমবারের মত শুরু হচ্ছে মুসলিম লাইফ স্টাইল এক্সপো-২৪ রাজশাহীর লক্ষীপুরে ওয়ানওয়ে খুলে দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন ভূল্লীতে ঋণের চাপ সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু ঠাকুরগাঁও‌য়ের পু‌লিশ সুপার পেলেন পিপিএম পদক মেয়াদোত্তীর্ণ ভূল্লী প্রেসক্লাবের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা রাজশাহী শাহ্ মখদুম কলেজের শিক্ষক জীবন কুমার ঘোষের পি-এইচ.ডি ডিগ্রী অর্জন ঠাকুরগাঁওয়ে ট্যাপেন্টাডোল ট্যাবলেট সহ দুইজন গ্রেফতার ঠাকুরগাঁওয়ে মন্দিরের ভিত্তি প্রস্তরের উদ্বোধন ফেসবুকে প্রতারণা, ঠাকুরগাঁওয়ে গ্রেফতার যুবক

জন্মদিনের দ্বিতীয় দিনেও নেতা-কর্মীদের ভালবাসায় সিক্ত জননেতা আব্দুর রহমান

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ১১ মার্চ, ২০২১
  • ৫৬৩ জন পড়েছেন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

দ্বিতীয় দিনেও শুভাকাঙ্খীদের অনুরোধে জন্মদিনের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতিমন্ডলীর অন্যতম সদস্য জননেতা আব্দুর রহমান।

১৯৫৪ সালে ৯ মার্চ , বৃহত্তর ফরিদপুর জেলার মধুখালীর কামালদিয়ায় মা আয়েশা’র কোল আলোকিত করে পৃথিবীর বুকে জন্ম নেন আমাদের সবার প্রিয় নেতা আব্দুর রহমান। গ্রামের সুজলা সফলা শষ্য শ্যামলা প্রকৃতি, নদী ও পাখির কলতানে বেড়ে ওঠা ডানপিটে আব্দুর রহমানের নবম শ্রেণীতেই রাজনীতিতে হাতেখড়ি।

১৯৭৩ সালে ফরিদপুর ইয়াছিন কলেজ ছাত্রসংসদের সহ-সাধারন সম্পাদক এবং ১৯৭৪ সালে সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন তুমুল ছাত্র জনপ্রিয়তার কারনে। ১৯৮১ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের কার্যনির্বাহী সদস্য, এবং পরবর্তীতে সাংগঠনিক দক্ষতার কারনে ১৯৮৪ সালে যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মনোনীত হন।
১৯৮৬ সালে সারাদেশে প্রচন্ড ছাত্র জনপ্রিয়তার কারনে, ছাত্র নেতৃত্বের গুনাবলীতে আকৃষ্ট হয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আব্দুর রহমান কে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব দেন।

সফলভাবে তিনি ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের নিয়ে স্বৈরাচার এরশাদের বিরুদ্ধে গন আন্দোলন পুঞ্জিভূত করেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশ অক্ষরে অক্ষরে বাস্তবায়ন করেন জনপ্রিয় ছাত্রনেতা আব্দুর রহমান।

দেশরত্ন শেখ হাসিনা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী ও গতিশীল করার লক্ষ্যে তিনি তার প্রিয় ছোটভাই আব্দুর রহমান ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে ছুটে বেড়িয়েছেন দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে। বঙ্গবন্ধু কন্যা ছাত্রনেতা আব্দুর রহমান জ্বালাময়ী বক্তৃতা অনেক পছন্দ করতেন। সেই জন্য প্রতিটি জনসভায় আয়োজক/উপস্থাপক কে বলতেন ” আমার আব্দুর রহমান” কে বক্তৃতা দিতে দিও। তৎতকালীন ছাত্রলীগকে করেছেন অনেক শক্তিশালী ও সুসংগঠিত। বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার বন্ধে সাধারন শিক্ষার্থীদের নিয়ে সচেতনতা তৈরি করেন তিনি।


মাননীয় নেত্রী তার প্রিয় ছোট ভাই আব্দুর রহমানকে বিয়ে দিয়েছিলেন নিজের পছন্দ করা কণের ( বঙ্গবন্ধুর সহচর ও টাঙাইলের সাবেক সংসদ সদস্যের সুকণ্যা ডা: মির্জা নাহিদা হোসেন বন্যা ) সাথে, এমনকি বিয়ের যাবতীয় কেনাকাটাও করে দিয়েছিলেন। বাংলাদেশের আপামর জনসাধারনের আশার বাতিঘর দেশরত্ন শেখ হাসিনা’র প্রিয় স্নেহধন্য “আমার রহমান” আজ ছাত্রনেতা থেকে জননেতা। রাজনীতিতে সাংগঠনিক দক্ষতার প্রমান দিয়ে শেখ হাসিনার আব্দুর রহমান আজ ধাপে ধাপে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সদস্য থেকে সাংগঠনিক সম্পাদক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং বর্তমানে প্রেসিডিয়াম সদস্যের দায়িত্বপালন করছেন, হয়েছিলেন দু’দুবার সংসদ সদস্যও। বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন সফলতার সাথে। দেশরত্ন শেখ হাসিনার প্রিয় সেই “আমার রহমান” আজ সারা বাংলাদেশের আপামর জনসাধারণের আব্দুর রহমান। এটাই তার শুভাকাঙ্ক্ষীদের জন্য অনেক গর্বের, প্রশান্তির।

 

দেশরত্ন শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত সিপাহশালা হয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগকে আরো সুসংগঠিত ও সমুজ্জ্বল করতে এবং সেইসাথে তার সুস্বাস্থ্য, দীর্ঘায়ু ও সার্বিক সফলতা কামনা করেছেন দেশের লাখো নেতা-কর্মী ও শুভাকাঙ্ক্ষী। পরিবাগের বাসায় বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের ফুলেল শুভেচ্ছা ও ভালবাসায় সিক্ত হন আওয়ামীলীগের জনপ্রিয় এই নেতা। সেদিন নেতার শুভকামনা করে মসজিদে মিলাদ ও মন্দিরে প্রার্থনার আয়োজন করে তার নির্বাচনী এলাকাবাসী এবং দেশের বিভিন্ন স্তরের শুভাকাঙ্ক্ষী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও শুভাকাঙ্ক্ষীগন তাদের প্রিয় এই নেতাকে জন্মদিনের কেক কেটে শুভেচ্ছা জানিয়ে স্ট্যাটাস দিয়েছেন অনেকেই।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা

%d bloggers like this: