1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. protidinershomoy@gmail.com : Showdip : Meherabul Islam সৌদিপ
  3. mamunshohag7300@gmail.com : মামুন সোহাগ : মামুন সোহাগ
  4. nasimriyad24@gmail.com : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
  5. protidinershomoy24@gmail.com : Abir Ahmed : Abir Ahmed
  6. shujanthakurgaon@gmail.com : Sujon Islam : Sujon Islam
শুক্রবার, ০৬ অগাস্ট ২০২১, ০৩:৫৪ পূর্বাহ্ন

বঙ্গবন্ধুর ‘জুলিও কুরি’ শান্তি পদক আমাদেরকে বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করিয়েছে: হাসান ইকবাল

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : সোমবার, ২৪ মে, ২০২১
  • ১০৪ জন পড়েছেন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ইতালী আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবাল বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে একটি যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশ গড়ার অঙ্গীকার নিয়ে কাজ শুরু করেন আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তখন বাংলাদেশকে পুনর্গঠনের দায়িত্ব জাতির পিতা নিজের হাতে নেন। এমন একটি সময়ে কোটি খানেক নাগরিক যারা সীমান্ত অতিক্রম করে প্রতিবেশী দেশ ভারতে আশ্রয় নিয়েছেলেন তাদের ফিরিয়ে আনা, তারা যারা সশস্ত্র সংগ্রামে যুক্ত হয়েছিলেন তাদের অস্ত্র সংগ্রহ করা এবং সে সঙ্গে আমাদের মিত্র বাহিনীর দেশে ফিরে যাওয়ার যে ব্যাপারটি এইসব কিছু কিন্তু একেকটি অনন্য সাধারণ কাজ ছিল। এই কাজগুলো আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে একের পর এক দূরদর্শিতার সহিত অতিক্রম করতে হয়েছে। এটা ভুলে গেলে চলবে না যে যখন যুদ্ধ চলছিল তখন পুরো সময়টা কিন্তু তিনি কারাবন্দি ছিলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘জুলিও কুরি’ শান্তি পুরস্কারপ্রাপ্তি ছিল তাঁর সারা জীবনের লড়াই-সংগ্রামের ফসল। একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র গঠন ও মানবতার জন্য বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠার অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বঙ্গবন্ধুকে এই আন্তর্জাতিক মর্যাদাপূর্ণ পদক প্রদান করা হয়। ১৯৭২ সালের অক্টোবর মাসে চিলির রাজধানী সান্টিয়াগোতে বিশ্ব শান্তি পরিষদের প্রেসিডেন্সিয়াল কমিটির সভায় বাঙালি জাতির মুক্তি আন্দোলন এবং বিশ্ব শান্তির সপক্ষে বঙ্গবন্ধুর অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ‘জুলিও কুরি’ শান্তি পদক প্রদানের প্রস্তাব উপস্থাপিত হয় এবং পৃথিবীর ১৪০টি দেশের শান্তি পরিষদের ২০০ প্রতিনিধির উপস্থিতিতে বঙ্গবন্ধুকে সর্বসম্মতিক্রমে ‘জুলিও কুরি’ শান্তি পদক প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বঙ্গবন্ধু তার জীবনে যেসব কাজগুলো করে গিয়েছেন তার স্বীকৃতিসরূপ এই পদক প্রাপ্তি বিশ্ব দরবারে একটি বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সদ্য স্বাধীন হওয়া জাতির প্রতিটি নাগরিকের মর্যাদা সমুন্নত করেছে মাথা উঁচু করে বিশ্বের দরবারে এই স্বীকৃতি অর্জন করার আনন্দ অনুভব করতে পেরেছি। এ সম্মান পাওয়ার পর বঙ্গবন্ধু নিজেই বলেছিলেন, ‘এ সম্মান কোনো ব্যক্তিবিশেষের জন্য নয়। এ সম্মান বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে আত্মদানকারী শহীদদের, স্বাধীনতা সংগ্রামের বীরসেনানীদের। ‘জুলিও কুরি’ শান্তিপদক সমগ্র বাঙালি জাতির।’ সে সময় একটি বাস্তবতায় বঙ্গবন্ধুর জোট নিরেপেক্ষ অবস্থানে তিনি দৃঢ়মূল ছিলেন এবং তার এই অবস্থানটি ছিল তৎকালীন সময়ের জন্য অনেক সময়োপযোগি।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page