1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. nasimriyad24@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  3. wp-configuser@config.com : James Rollner : James Rollner
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৭:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম
আইটি ট্রেনিং নিয়ে ঘরে বসেই ডলার ইনকাম করা সম্ভব, প্রতিমন্ত্রী পলক বীরমুক্তিযোদ্ধা শফিউর রহমান শফির মুক্তির দাবীতে রাজশাহীতে বিক্ষোভ নিউইয়র্কে সিলেট দক্ষিণ সুরমাবাসীর’র বার্ষিক বনভোজন ও মিলনমেলা টিউলিপ সিদ্দিক যুক্তরাজ্যের নগর বিষয়ক মন্ত্রী হওয়ায় রসায়নবিদ আলহাজ্ব ডক্টর মোঃ জাফর ইকবালের অভিনন্দন টিউলিপ সিদ্দিক যুক্তরাজ্যের নগর বিষয়ক মন্ত্রী হওয়ায় হাসান ইকবালের অভিনন্দন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে-এমপি সুজন ঠাকুরগাঁওয়ে শ্বশান ঘাটের বন্ধ রাস্তা খুলে দিলেন এমপি সুজন চারঘাট প্রেসক্লাবের সভাপতিসহ তিন সদস্যকে অব্যাহতি ঠাকুরগাঁওয়ে ভারী বর্ষণে ভেঙে গেছে সড়ক, যাতায়াতে দু*র্ভোগ মুক্তিযুদ্ধের চেতনার প্রশ্নে কোনো আপোষ নেই – সমবায় প্রতিমন্ত্রী

বেলকুচিতে পুরাতন সিলেবাসে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা, চিন্তিত অভিভাবকরা

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : সোমবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
  • ৭৩১ জন পড়েছেন

সবুজ সরকার স্টাফ রিপোর্টার :

সারাদেশে ন্যায় সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে এসএসসি ও সমমানের প্রথম দিনের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবছর বেলকুচি উপজেলার ৬ টি কেন্দ্রে স্কুল, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মোট ৪ হাজার ৯৭ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার কথা থাকলেও উপস্থিত ছিল ৪ হাজার ৮৩ জন শিক্ষার্থী।
এর মধ্যে একটি কেন্দ্রে হল সুপার তাপস মন্ডলের দায়িত্ব অবহেলার কারনে পুরাতন সিলেবাস অনুযায়ী পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে ঐ কেন্দ্রে পরীক্ষা দেওয়া শিক্ষার্থীরা।
শিক্ষার্থীরা জানায়, বেলকুচি উপজেলার দৌলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে আমরা হল সুপার তাপস মন্ডলের দায়িত্ব অবহেলার কারণে ২০১৮ সালের (পুরাতন সিলেবাস) অনুযায়ী পরীক্ষা দিয়েছি।
আমরা তাকে বিষয়টি অবহিত করলেও তিনি বলেন তাতে কোন সমস্যা হবে না। তোমরা পরীক্ষা দাও। আমরা আমাদের পরীক্ষার বিষয়ে চিন্তিত আছি।

ছাত্রদের অভিভাবকরা জানান, আমাদের সন্তানদের ভবিষ্যৎ নিয়ে সংকিত। জানিনা তাদের কি হবে। শিক্ষক মানুষ কিভাবে এসএসসি পরীক্ষার মত জায়গায় কিভাবে ভূল করেন।

তবে এ বিষয়ে অত্র কেন্দ্রের হল সুপার তাপস মন্ডলের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, একজন শিক্ষার্থী পুরাতন সিলেবাসের অন্তর্ভুক্ত ছিল। এমন উত্তরের প্রক্ষিতে প্রতিবেদক জানতে চায় তাহলে কেন ২৫ জন শিক্ষার্থী কেন পুরতন সিলেবাসের প্রশ্ন পেল? পরে তিনি তার সঠিক ব্যাখা দিতে পারেননি।

এ ব্যাপারে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এস এম গোলাম রেজা জানান, আমি বিষয়টি অবহিত হয়েছি। তবে এটা সম্পর্ণ হল সুপারের দায়িত্ব।

বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিফাত – ই- জাহান জানান, আমরা বিষয়টি অবহিত হওয়ার পর পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের সাথে কথা বলেছি। যারা পুরতন সিলেবাসে পরীক্ষা দিয়েছে তাদেরকে বিশেষ বিবেচনা দেখা বলে জানিয়েছেন। ছাত্রদের অভিভাবকেরা আমার কাছে একটা লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। আগামীকাল থেকে অন্য একজন ঐ কেন্দ্রের দায়িত্ব পালন করবে।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা

%d bloggers like this: