1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. protidinershomoy@gmail.com : Showdip : Meherabul Islam সৌদিপ
  3. mamunshohag7300@gmail.com : মামুন সোহাগ : মামুন সোহাগ
  4. nasimriyad24@gmail.com : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
  5. protidinershomoy24@gmail.com : Abir Ahmed : Abir Ahmed
  6. shujanthakurgaon@gmail.com : Sujon Islam : Sujon Islam
শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ০৬:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম

১২-১৫ জন মিলে ২ জন সাংবাদিককে মেরে আহত

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২০
  • ২৩৫ জন পড়েছেন
প্রতিদিনের সময় ডেস্কঃ রাজধানীর রূপনগর থানার ওসি তদন্ত মোকাব্বর এর নেতৃত্বে ১২-১৫ জন মিলে ২ জন সাংবাদিককে মেরে আহত করেছেন। তাদের একজনের অবস্থা ভীষণ খারাপ। একজনের পা ভেঙ্গে ফুলে উঠেছে আর একজনের হাত ফেটে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে।
ঘটনার সূত্রপাত , ইনিউজ৭১ এর বিশেষ প্রতিবেদক বেলা ৩ টার দিকে এক ক্যান্সার আক্রান্ত ব্যক্তিকে রক্ত দিয়ে বাসায় ফিরছিলেন।
এমন সময় রূপনগর আবাসিক এলাকাতে তার গতিরোধ করেন রূপনগর থানার কতিপয় পুলিশ , তবে অতি উৎসাহী একদল এসআই কোন কথা না শুনেই বেধড়ক মার মারছিলেন ওই সাংবাদিককে। তার পাশেই ছিলেন ইনিউজ৭১ এর সম্পাদক।তিনি ওষুধ কেনার জন্য আবাসিকের মোড়ে লাজ ফার্মাতে গিয়েছিলেন।
তিনি তার প্রতিবেদকে মারতে দেখে মোবাইল দিয়ে ভিডিও শুরু করলেই তাকে ১২-১৫ জন এক হয়ে জন্তুর মতো করে রাস্তায় ফেলে মারতে থাকেন। বার বার পরিচয় দেবার পর ও ভুয়া সাংবাদিক বলে আরও বেশি পেটায়। এক পর্যায় মোবাইল কেড়ে নিয়ে আছাড় দেয় এবং সাথে থাকা ৫০০০ টাকা সহ মানি ব্যাগ কেরে নেয় সম্পাদকের। পরে যদিও মানিব্যাগ আর মোবাইল ফেরত দেয় কিন্তু টাকা তাঁরা ভাগ করে নিয়ে যায়।
সম্পাদকের ভাষ্য মতে পুলিশ অনেক হিংস্র আচরণ করছে মানুষের সাথে , যাকে পাচ্ছে তাকে পেটাচ্ছে লাঠি , বাঁশ , ক্রিকেট খেলার স্ট্যাম্প এসব দিয়ে। তিনি জানান যে তাকে যেভাবে মারা হচ্ছিল এমন ভাবে যে সাংবাদিকেদের উপর কঠিন আক্রোশ ছিল ওই থানার পুলিশদের। একজন মানুষ কঠিন ভুল করলে ও কি করে জন্তুর মতো করে ১২-১৫ জন সবাই এক এক করে পিটিয়েছেন যাচ্ছেন। তাই তিনি এর কঠিন প্রতিবাদ কামনা করছেন সাংবাদিক সমাজের কাছে এবং আইজিপি মহাদয়ের কাছে এর বিচার দাবি করছেন।
সূত্রঃ ইনিউজ একাত্তর 

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page