1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. protidinershomoy@gmail.com : Showdip : Meherabul Islam সৌদিপ
  3. mamunshohag7300@gmail.com : মামুন সোহাগ : মামুন সোহাগ
  4. nasimriyad24@gmail.com : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম
কাপাসিয়া ডেইরী ফার্মারস এসোসিয়েশনের কমিটি গঠন নাগরপুরে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত বেলকুচিতে মুজিব বর্ষেই প্রতিটা ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে যাবে, জেনারেল ম্যানেজার অখিল কুমার সাহা কাপাসিয়া থানায় অনন্দ উদযাপন আন্তর্জাতিক নারী দিবস বিশ্বের সকল নারীদের শুভেচ্ছা জানিয়ে ইতালি মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পৃথক বার্তা ৭মার্চ উপলক্ষে নড়াইল জেলা পর্যায়ে কবিতা আবৃত্তিতে প্রথম হয়েছে সৃষ্টি বেলকুচিতে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান বেলকুচিতে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে থানা প্রশাসনের আনন্দ উদযাপন নাগরপুরে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত শার্শা উপজেলায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচী পালিত

নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালের মাঠেই মৃত্যু : এলাকাবাসীর ক্ষোভ প্রকাশ

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : রবিবার, ১২ এপ্রিল, ২০২০
  • ১৩৯ জন পড়েছেন

মামুন কৌশিক, নেত্রকোণা থেকে : নেত্রকোণার মোহনগঞ্জ উপজেলার মল্লিকপুর গ্রামের ঢাকা ফেরত নরউত্তম সরকার (৫৫) নামে এক ব্যক্তি গতকালকে মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মাঠে শ্বাস কষ্ট নিয়ে মারা গেছেন।জানা যায় মৃত ব্যাক্তির করোনা উপসর্গ ছিল। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নমুনা সংগ্রহ করে ময়মনসিংহ পাঠিয়েছেন। এলাকবাসী বলেছেন, করোনা উপসর্গ সন্দেহে ডাক্তার সকালে তাকে কিছু ঔষধ দিয়ে রুগীর নমুনা সংগ্রহ করে বাড়ি চলে যাবার পরামর্শ দেন। কিন্তু রুগীর আত্মিয়রা ভয় পেয়ে রুগীকে হাসপাতালের সামনের মাঠে রেখে চলে যায়। সারাদিন মাঠে থাকার পর বিকালে তার লাশ হাসপাতালের সামনে পরে থাকতে দেখা যায়।এলাকাবাসীর প্রশ্ন হাসপাতালের ভিতরে ডাক্তার ও চিকিৎসা সুবিধা থাকতে হাসপাতালের সামনে মাঠে রুগীর লাশ কেন। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে স্থানীয় এলাকাবাসী। এলাকার অনেক মানুষ বলেন যে যদি ডাক্তার সন্দেহই করে থাকে যে উনার করোনা হয়েছে বা সম্ভাবনা আছে, তবে তাকে বাড়িতে পাঠাল কেন।তাদের দাবী এই লোকটির কাছ থেকে তো এখন মোহনগঞ্জ এলাকার শত শত লোক করোনায় আক্রান্ত হতে পারে।তাকে তো বিশেষ তত্বাবধানে চিকিৎসা সেবা দেয়ার জন্য প্রয়োজনে ময়মনসিংহ মেডিকেলে পাঠানো দরকার ছিল।মোহনগঞ্জ এলাকার অনেক সচেতন নাগরিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন যে, বাংলাদেশের একজন নাগরিক কি মৃত্যুর আগে রাষ্ট্র্রের কাছে এতটুকু চিকিৎসা সেবা প্রত্যাশা করতে পারেনা।তবে করোনা উপসর্গ থাকা স্বত্তেও রোগীকে কেন ময়মনসিংহ না পাটিয়ে বাড়িতে পাটানো হল এবিষয়ে বারবার জানার চেষ্টা করা হলেও জানা যায়নি।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page