1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. protidinershomoy@gmail.com : Showdip : Meherabul Islam সৌদিপ
  3. mamunshohag7300@gmail.com : মামুন সোহাগ : মামুন সোহাগ
  4. nasimriyad24@gmail.com : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
  5. protidinershomoy24@gmail.com : Abir Ahmed : Abir Ahmed
  6. shujanthakurgaon@gmail.com : Sujon Islam : Sujon Islam
শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ০৩:৩২ অপরাহ্ন

চৌহালীতে আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে ১০ টাকা দরের চাল কম দেওয়ার অভিযোগ

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : মঙ্গলবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২০
  • ৫৩ জন পড়েছেন

চৌহালী (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে আবদুল হাই ভুট্টো নামের এক ডিলারের বিরুদ্ধে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর চাল ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগে উঠেছে। মঙ্গলবার দুপুরে উমারপুর ইউনিয়নের হাপানিয়া খেয়াঘাটে কার্ডধারীরা চাল কম পেয়ে ক্ষোভে ফুঁসে ওঠে। এদিকে চাল কম দেওয়ার ঘটনা নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হলেও লিখিত অভিযোগ না পাওয়ায় শাস্তি মুলক ব্যবস্থা নেয়নি কর্তারা। তবে উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে উমারপুর ইউনিয়ন সহ ৩ ইউনিয়নে চলছে লকডাউন। এলাকাবাসি ও কার্ডধারীরা জানায়, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষনা অনুযায়ী সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর (ওএমএস) আওতায় একেকজন হতদরিদ্রকে ১০ টাকা কেজি দরে ৩০০ টাকায় ৩০ কেজি চাল দেওয়ার কথা। এজন্য প্রতিটি ডিলারের নির্দিষ্ট গুদাম ঘর থেকে চাল বিক্রির নির্দেশনা থাকলেও চৌহালী উপজেলার যমুনার দুর্গম চর অধ্যুষিত উমারপুর ইউনিয়নের ২ নং ৬ নং ৭ নং ৮ নং ৯ নং ওয়ার্ডের ওএমএস ডিলার আবদুল হাই ভুট্টো এ নিয়ম মানছে না। তিনি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বলে জানা গেছে। এদিকে মঙ্গলবার সকাল থেকে হাপানিয়া বাজারে তার গুদাম ঘরে চাল ক্রয়ের জন্য কার্ডধারীরা অপেক্ষায় থাকে। তবে দুপুরের দিকে খবর আসে চাল খেয়াঘাট থেকে ক্রয় করতে হবে। এজন্য প্রতিটি কার্ডধারীকে যাতায়াত বাবদ ঘোড়ার গাড়িতে ৮০ টাকা ভাড়া গুনতে হচ্ছে। তারপরও করোনাভাইরাস প্রতিরোধে লকাডাউন ঘোষনা করা উমারপুর ইউনিয়নের দুর্গম চরের হতদরিদ্ররা ৩০০ টাকা দিয়ে ৩০ কেজি চালের বস্তা সংগ্রহ করতে যায়। এসময় বস্তায় চাল কম আছে, কার্ডধারীদের এমন সন্দেহ হয়। পরে চাল ওজন করলে প্রতিটি বস্তায় ৪-৫ কেজি করে চাল কম হয়। এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হলে কর্মহীন হতদরিদ্ররা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। এসময় অবস্থা বেগতিক দেখে ডিলার আবদুল হাই ভুট্টো সটকে পড়েন। এ বিষয়ে উমারপুরের কার্ডধারী কামরুল হাসান অভিযোগ করে জানান, ডিলার আবদুল হাই ভুট্টো নিজের ইচ্ছেমত বস্তা প্রতি ৪-৫ কেজি করে চাল ওজনে কম দিচ্ছে। এর প্রতিবাদ করতে গেলে তাদের কার্ড বাতিল করে দেয়ার হুমকি দেয়। এদিকে হাপানিয়া চরের শহিদুল, আসিয়া খাতুন ও কামাল হোসেন জানান, বাজারের গুদাম থেকে চাল না দিয়ে ৮ কিলোমিটার দুরে খেয়াঘাটে বালুর রাস্তা পায়ে হেটে অথবা ঘোড়ার গাড়িতে যাতায়াতে প্রায় ৮০ টাকা খরচ করে যেতে হচ্ছে। এরপরও ৩০০ টাকা দিয়ে ৩০ কেজির স্থলে ২৫ কেজি চাল নিতে হচ্ছে। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে ডিলার এসব অপকর্ম করে যাচ্ছে। করোনার এই দুর্যোগে মানুষ খাদ্যের অভাবে দিশাহীন হয়ে পড়েছে। সে সময় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশকে অমান্য করে চাল কম দেয়া হচ্ছে। তবে ডিলার আবদুল হাই ভুট্টো মোবাইলে বলেন, চালের ওজন নিয়ে একটু জামেলা হইছে। এবিষয়ে পড়ে কথা বলি, লোকজনের মধ্যে ব্যস্ত আছি, বলেই ফোন কেটে দেন। এরপর থেকে তার মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে। এবিষয়ে চৌহালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেওয়ান মওদুদ আহমেদ জানান, ওএমএস এর চাল বিক্রি তদারকির জন্য নিযুক্ত ট্যাগ অফিসারকে না জানিয়েই ডিলার আবদুল হাই চাল বিক্রি শুরু করেছে। এটা সরাসরি সরকারী নির্দেশনা অমান্য। এছাড়া চাল কম দেওয়ার বিষয়ে শুনেছি তবে লিখিত অভিযোগ পেলে বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করতে উর্ধ্বতন মহলকে লিখিত সুপারিশ হবে।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page