1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৬:৪৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম
নাগরপুরে  কাভারভ্যান ও ইজিবাইকের মুখোমুখি সংর্ঘষ, নিহত ১ আহত ৩ ভোটারদের নিরাপত্তা চেয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনে আবেদন করলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী শার্শায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবস পালিত ইতালিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনে আলোচনা সভা বেনাপোল বন্ধন ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রাজশাহীতে দৈনিক ডেল্টা টাইমস্”র বর্ষপূর্তি পালিত শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে টানা ৪ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ ডিজিটাল মার্কেটিং কি? মার্কেটিং করার ৮ টি সেরা মাধ্যম! বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের অভিযানে গাঁজা সহ আটক-৩ নাগরপুরে সহবতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন

আর চলতে পারতেছি না বাবা এখন যদি একটু সাহায্য পেতাম : বারহাট্টার তিন বৃদ্ধের আহাজারী

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : রবিবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২০
  • ৫৩২ জন পড়েছেন

মামুন কৌশিক বারহাট্টা থেকে : মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্যই।একজন আরেকজনের বিপদে এগিয়ে আসবে সেটাই হল সামাজিকতা। কিন্তুু মহামারী করোনা সারা পৃথিবীর জীবন যাত্রায় যেন স্তবিরতা নিয়ে এসেছে।এক এক করে সারা পৃথিবীর প্রায় সব দেশ নিজেদের কে লক ডাউন করে নিয়েছে।বাংলাদেশেরও প্রায় অধিকাংশ জেলা লক ডাউন হয়েছে।নেত্রকোণা জেলাও লক ডাউন হয়েছে পাঁচ দিন ধরে।স্বাভাবিক ভাবেই লক ডাউন বারহাট্টা উপজেলাও।কিন্তুু সবচেয়ে বেশি সমস্যায় আছেন দিন এনে দিন খাওয়া মানুষগুলো।যাদের কেউ কেউ ভ্যান গাড়ি চালাতেন, কেউ আইসক্রিম বিক্রি করতেন।কিন্তুু সারা দেশে যেখানে শতশত মানুষের জীবনের চাকা থেমে যাচ্ছে সেখানে তাদের ভ্যান গাড়ির চাকা কি করে চলবে।জীবনের চাকা তাদেরও প্রায় থামার অবস্থায় চলে এসেছে ।প্রায় অধিকাংশ দিন যাচ্ছে না খেয়েই।আমি বলছিলাম বারহাট্টা উপজেলার সদর ইউনিয়নের মহাজন পাড়া গ্রামের দুই ভ্যান চালক জালাল মিয়া ও কিতাব আলী মিয়া এবং বৃকালিকা গ্রামের আইসক্রিম বিক্রেতা চিত্তরঞ্জন এর কথা।লক ডাউনের জন্য তারা এখন আর বাইরে বের হতে পারছেন না।তাদের দাবী বারহাট্টা উপজেলার মানবিক চেয়ারম্যান মাইনুল হক কাশেম অন্তত তাদের জন্য কিছু না কিছু করবেন।তাদের প্রায় সবারই বয়স ৫০ এর উপরে।প্রথম দুজন কাজ করে , ভ্যান চালিয়ে কোনমতে নিজেদের জীবিকা নির্বাহ করতেন। জালাল মিয়ার তিন ছেলে এবং দুই ছেলের বউসহ মোট তাদের ৭জনের সংসার। আর কিতাব আলী মিয়ার ১ছেলে মোট তিন জনের সংসার।চিত্তরঞ্জন আগে আইসক্রিম বিক্রি করতেন। কিন্তুু লক ডাউনের জন্য তিনি আর বের হতে পারছেন না।পরিবারের প্রায় সবাই দিনমুজুর।কিন্তুু সব কিছু লক ডাউন হয়ে যাওয়ায় কোন আয় রোজগার করতে পারছেন না তারা।তাদের দাবী বারহাট্টা উপজেলা চেয়ারম্যান মাইনুল হক কাশেম ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা যেন দ্রুত তাদেরকে সাহায্য সহযোগিতা দেন।তারা যেন অন্তত দুমুটো খেয়ে যেতে পারেন।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা