1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. protidinershomoy@gmail.com : Showdip : Meherabul Islam সৌদিপ
  3. mamunshohag7300@gmail.com : মামুন সোহাগ : মামুন সোহাগ
  4. nasimriyad24@gmail.com : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
  5. protidinershomoy24@gmail.com : Abir Ahmed : Abir Ahmed
  6. shujanthakurgaon@gmail.com : Sujon Islam : Sujon Islam
শুক্রবার, ০৬ অগাস্ট ২০২১, ০২:১৩ পূর্বাহ্ন

নেত্রকোণা থেকে বারহাট্টা পর্যন্ত পায়ে হেঁটে আসা ধান কাটার শ্রমিকদের কর্মস্থলে পৌঁছে দিলেন বারহাট্টা থানার ওসি

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : সোমবার, ২০ এপ্রিল, ২০২০
  • ২৪৩ জন পড়েছেন

মামুন কৌশিক, নেত্রকোণা থেকে : সারা দেশে করোনা সংক্রমণ ভয়াবহ রুপ ধারণ করেছে।যার কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে নিম্ন আয়ের মানুষ।আরো বেশি ক্ষতির মুখে হাওর অঞ্চলের কৃষকরা।শ্রমিকের অভাবে ধান কাটতে পারছেন না তারা।অথচ আবহাওয়া অফিস থেকে বলা হয়েছে আগাম বন্যার সম্ভবনা রয়েছে।এমন অবস্থায় নেত্রকোণা থেকে রাতের আঁধারে হেঁটে আসা কিছু ধান কাটার শ্রমিক কে মোহনগঞ্জ পর্যন্ত পৌঁছে দিয়ে আসলেন বারহাট্টা থানার ওসি মিজানুর রহমান।তিনি বলেন যে,রাত ০১.৩০ ঘটিকা আমি রাস্তায় টহল দিচ্ছি। হঠাৎ কাঁধে ব্যাগসহ ছয়জন লোক রাস্তায় হাটতে দেখে গাড়ি থামাতে বললাম। নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে জিজ্ঞেস করলাম, কোথা হইতে এসেছে যাবেই বা কোথায়। তাদের মধ্যে একজন বললো তাদের বাড়ি ময়মনসিংহে।নেত্রকোনা হইতে বারহাট্টা পর্যন্ত পায়ে হেঁটে এসেছে, যাবে মোহনগঞ্জ হাওরাঞ্চলে ধান কাটতে।সত্যতা যাচাইয়ের নিমিত্তে প্রমাণ দেখাতে বললে তারা কাস্তে, দড়ি ও তাদের স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এ-র প্রত্যয়ন পত্র দেখালো। আমি সব
শোনে তাদের কে গাড়িতে উঠতে বলায় প্রথমে তারা ভয় পেয়ে গেল,যখন বললাম উঠো তোমাদের মোহনগঞ্জ দিয়ে আসি।এ কথা বলার পর তাদের চোখে- মুখে যে প্রশান্তির ছাপ আমি দেখেছি, তা লিখে বুঝাতে পারবনা এ এক অন্য রকম অনুভূতি। এরপর গাড়ি করে তাদের মোহনগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছে দিয়ে তথায় ডিউটিরত পুলিশ অফিসারকে তাদেরকে গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করার জন্য দিক নির্দেশনা দিয়ে চলে আসলাম।তিনি আরও জানান যে, তাদের মধ্যে তিনজন কলেজে পড়োয়া বলে জানায়।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page