1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৬:০২ অপরাহ্ন
শিরোনাম
নাগরপুরে ইউপি চেয়ারম্যান নৌকা ৬,বিদ্রোহী ২ ও স্বতন্ত্র ৩ হেফাজত মহাসচিব এর মৃত্যুতে শায়খুল হাদীস আল্লামা সিরাজুল ইসলাম পীর সাহেব নেত্রকোণার শোক নড়াইলে ১০ ইউপিতেই স্বতন্ত্রের জয়, নৌকা দুই ইতালিতে কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত অমান্য করে আওয়ামী লীগের সম্মেলন,বহিস্কার হবেন অনেকে ঠাকুরগাঁওয়ে ভূল্লীতে ট্রাকের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত নাগরপুরে ইউপি নির্বাচনে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা, চাপাতি সহ আটক ১ লোহাগড়া নলদী ইউনিয়নে নৌকা প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা সলিমাবাদ ইউপিতে জনপ্রিয়তার শীর্ষে নৌকার মাঝি অপু ইউপি নির্বাচনে মেম্বার প্রাাথী শাহিন হাওলাদারের ব্যাপক প্রচারনা নাগরপুরে নির্বাচনী সংহিতায় নিহত ১ গুলিবিদ্ধসহ আহত ৪

নাটোরের সিংড়ায় শিলাবৃষ্টিতে ফসলের ব্যপক ক্ষতি

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : বুধবার, ২২ এপ্রিল, ২০২০
  • ২২৫ জন পড়েছেন

রাজু আহমেদ, সিংড়া: নাটোরের সিংড়ায় শিলাবৃষ্টিতে ফসলের ব্যপক ক্ষতি হয়েছে। বুধবার বিকালে উপজেলার রামানন্দ খাজুরা, ছাতারদিঘী ও সুকাশ ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় শিলাবৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়।

কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, এ সময় ১৫০০-১৮০০ হেক্টর জমির ধানের ২৫-৩০% নষ্ট হয়েছে। রামানন্দ খাজুরা ইউনিয়ন এর ধানের ৫০% ক্ষতি হয়েছে।

উল্লেখ্য, আজকের শিলাবৃষ্টিতে সিংড়া উপজেলার বেলতা, পাঁচপাকিয়া, মালকুড়, থেলকুড়, কুচাইকুরি,
এলাকাগুলোতে সবচাইতে বেশি ধানের ক্ষতি হয়।
শিলা বৃষ্টির আঘাতে মাটির সঙ্গে নুইয়ে পড়েছে উঠতি ফসল গম, মসুর, ভূট্টা, পেঁয়াজ, রসুন, ধানসহ বিভিন্ন ফসল ও সবজি।

ঝরে পড়েছে সজনে ও গুটি আম । কোনো কোনো বাগানে আম গাছের ডালপালাও ভেঙে পড়েছে।

এদিকে ফসলের পাশাপাশি কাঁচা ঘরবাড়ির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঘরের দেয়াল ভেঙে গেছে, উড়ে গেছে ছাউনি। বিশেষ করে শতাধিক বাড়ির টিন ফুটো হয়ে গেছে।

বুধবার (২২শে’ এপ্রিল ) বিকেল ৩টার দিকে হঠাৎ শুরু হওয়া এ শিলা বৃষ্টি ২০/৩০ মিনিট স্থায়ী হয়।

কৃষকরা জানান, ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে আমাদের মাঠের সব ধরনের ফসলের ক্ষতি হয়েছে। মাঠ থেকে ফসল আর বাড়িতে নিয়ে যেতে পারবো না। এ ধরনের ঝড় ও শিলা বৃষ্টি বিগত বছরেও দেখেনি বলে তারা উল্লেখ করেন।

রামানন্দ খাজুরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুকুল হোসেন বলেন, এ বছরের শিলাবৃষ্টিতে বহু কৃষকের ক্ষতি হয়েছে।
অনেক দিনমজুরের ঘড় বাড়ি ভেঙ্গে গেছে।

ছাতারদিঘী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলতাব হোসেন আকন্দ জানান, তাঁর ইউনিয়নের কয়েকটি ওয়ার্ডে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বিশেষ করে রামনগর, ছাতারদিঘী, খন্দকার বড়বাড়ি এলাকায় কৃষকের ধান নষ্ট হয়ে গেছে।

উপজেলা কৃষি অফিসার সাজ্জাদ হোসেন জানান, উপজেলার দুটি ইউনিয়নে ফসলের ক্ষতি হয়েছে। প্রায় ১৫০০ শ হেক্টর জমির ফসলহানির খবর পেয়েছি। কাল সরেজমিনে গিয়ে পরিদর্শন করবো।

রাজু আহমেদ
২২/০৪/২০

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা