1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. protidinershomoy@gmail.com : Showdip : Meherabul Islam সৌদিপ
  3. mamunshohag7300@gmail.com : মামুন সোহাগ : মামুন সোহাগ
  4. nasimriyad24@gmail.com : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
  5. protidinershomoy24@gmail.com : Abir Ahmed : Abir Ahmed
  6. shujanthakurgaon@gmail.com : Sujon Islam : Sujon Islam
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
নাগরপুরে নানা আয়োজনে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ছেন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা: হাসান ইকবাল নাগরপুরে আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত সচেতনতার লিফলেটে হাতে ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার প্রধানমন্ত্রীসহ বিভিন্ন সংস্থার ঊধ্বর্তন কর্তার স্বাক্ষর জাল করে ডিও লেটার, মূল প্রতারক আটক নাগরপুরে মানসিক ভারসাম্যহীন অজ্ঞাত এক ব্যাক্তির মৃত্যু বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শেখ অলি আহাদ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে সুইডেন আওয়ামী লীগের শুভেচ্ছা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ইতালি মহিলা আওয়ামী লীগের শুভেচ্ছা বার্তা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন ইউনূস আলী খান

লোহাগড়ায় ৮শ পরিবারে মাঝে সবজির বীজ বিতরণ

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : মঙ্গলবার, ৫ মে, ২০২০
  • ১৪৭ জন পড়েছেন

নড়াইল প্রতিনিধি: করোনা পরিস্থিতিতে খাদ্য ও পুষ্টিসংকট মোকাবেলায় লোহাগড়া কৃষি কর্মকর্তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে উপজেলার আটশত পরিবারের মাঝে বীজ বিতরণে মাধ্যেমে বসত বাড়িকে পুষ্টিখামারে রূপান্তরের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (৫ মে) সকাল ১১টায় কৃষি কর্মকর্তার অফিস সম্মুখে এ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বি এম কামাল হোসেন, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মুনমুন সাহা, লক্ষ্মীপাশা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কাজী বনি আমিন, বিআরডিবি কর্মকর্তা যতিপ্রকাশ মল্লিক প্রমুখ।

লোহাগড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সমরেন বিশ্বাস জানান, লোহাগড়া উপজেলার জয়পুর ইউনিয়নের নারানদিয়ার, পৌরসভার রামপুর গ্রামসহ আটশত বাড়ির উঠানে গড়ে তোলা হবে পুষ্টিখামার। সেখানে থাকবে পাঁচ প্রকারের সবজি। এতে করোনাকালে সবজি ঘাটতি দূর হবে। প্রতি ইউনিয়নে ৬০টি থেকে ৮০টি বসত বাড়িতে পাঁচ প্রকারের সবজির উন্নতমানের বীজ, লালশাক, পুঁইশাক, কুমড়া, চিচিংগা, ঢেঁড়স বীজ উপ-সহকারী কৃষি অফিসারদের মাধ্যমে পৌঁছে দেওয়া হবে।

তিনি আরো জানান, বসতবাড়ির পতিত জায়গাগুলোকে চাষের আওতায় নিয়ে আসতে পারলে সংশ্লিষ্ট পরিবারের সদস্যদের কোনো সবজি কিনে খেতে হবে না। ফলে তাদের পারিবারিক পুষ্টি চাহিদা মিটবে সবজি বাগান থেকে।

উপ-সহকারী কৃষি অফিসারদের মাধ্যমে হাতে-কলমে বসতবাড়িতে খামারজাত সার উৎপাদন ও সবজি চাষপদ্ধতি শেখানোর উদ্যোগও নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

নারান্দিয়া গ্রামের গীতা মল্লিক বলেন, ‘কৃষি অফিস থেকে আমাদেরকে এই যে সবজির বীজ দেওয়া হলো এতে আমরা খুব খুশি। আমাদের ত্রাণ লাগবে না। কৃষিকাজে আমাদেরকে সাহায্য করলেই হবে’।
গ্রামবাসী মনে করেন, এ উদ্যোগ সারা বাংলাদেশে নেওয়া হলে দেশের কোনো গ্রামে কোনো সবজি ঘাটতি থাকবে না।#

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page