1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
রবিবার, ২২ মে ২০২২, ১২:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
ঠাকুরগাঁওয়ে হারভেস্ট প্লাস ব্রি ধান জিং (১০০) কর্তন  আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন হাসান ইকবাল  গাঁজা খেতে নিষেধ করায় সাংবাদিককে পেটালো কিশোর গ্যাং আমরা চাইবো দেশে একটি দায়িত্বশীল বিরোধীদল থাকুক: হাসান ইকবাল ঠাকুরগাঁওয়ে মাটি খুঁড়তে গিয়ে ২৪ টি রাইফেল,৩ টি এলএমজি উদ্ধার ঠাকুরগাঁও বালিয়া ইউনিয়নে উন্মুক্ত বাজেট ও মতবিনিময় সভা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে হাসান ইকবালের বার্তা ঠাকুরগাঁওয়ে মাদকসহ ২ ব্যবসায়ি গ্রেফতার বেনাপোল স্হলবন্দরে অনিদিষ্ট কালের জন্য পণ্য পরিবহন বন্ধ বাংলাদেশ দ্রুত শ্রীলংকায় পরিনত হতে যাচ্ছে মির্জা ফখরুল ইসলাম

লোহাগড়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্যোগে ধান কাটা শুরু

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : শুক্রবার, ৮ মে, ২০২০
  • ২২৩ জন পড়েছেন

নড়াইল প্রতিনিধিঃ সারা দেশে করোনার প্রদুভার্ব বেড়ে যাওয়ায় শ্রমিক সংকটের কারণে কৃষকরা জমির ধান কাটা নিয়ে পড়েছেন বিপাকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবানে সাড়া দিয়ে লোহাগড়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্যোগে ধান কাটা কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে।

শুক্রবার (৮ মে) সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলার মঙ্গলহাটা গ্রামের দরিদ্র কৃষক ইকলাস শেখের জমির ধান কাটার উদ্বোধন করেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোল্লা আমীর হোসেন। এ সময় অন্যান্যেও মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, যশোর শিক্ষা বোর্ডেও প্রকৌশলী মো. কামাল হোসেন, নড়াইল জেলা মাধ্যামিক কর্মকর্তা ছায়েদুর রহমান, লোহাগড়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল হামিদ ভূঁইয়া, লোহাগড়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এস এম হায়াতুজ্জামানসহ বিভিন্নকলেজ ও বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারী ও দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা এ ধান কাটায় অংশ গ্রহনকরেন।

এ বিষয় বর্গা চাষী ইকলাস শেখ বলেন, ‘আমি একজন চা বিক্রেতা অর্থসংকট ও জনবলের অভাবে ধান কাটতে না পারায় লোহাগড়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি আমার ৮০ শতক জমির ধান কেটে দিচ্ছেন।’

লোহাগড়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এস এম হায়াতুজ্জামান জানান, ‘আমার বিদ্যালয়ের যে সকল দরিদ্র শিক্ষার্থীদের পরিবার অর্থ ও জনবলের অভাবে ধান কাটতে পারছে না আমারা তাদের ধান কেটে দেয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।’

এ বিষয়ে যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোল্লা আমীর হোসেন বলেন, ‘দেরীতে হলেও এটা সময় উপযোগি। আমি আশা করবো সকল স্কুল ও কলেজের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা গরীব কৃষকদের ধান কেটে দিতে এভাবে পাশে দাঁড়াবে।’

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা