1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৭:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম
ঠাকুরগাঁওয়ে হারভেস্ট প্লাস ব্রি ধান জিং (১০০) কর্তন  আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন হাসান ইকবাল  গাঁজা খেতে নিষেধ করায় সাংবাদিককে পেটালো কিশোর গ্যাং আমরা চাইবো দেশে একটি দায়িত্বশীল বিরোধীদল থাকুক: হাসান ইকবাল ঠাকুরগাঁওয়ে মাটি খুঁড়তে গিয়ে ২৪ টি রাইফেল,৩ টি এলএমজি উদ্ধার ঠাকুরগাঁও বালিয়া ইউনিয়নে উন্মুক্ত বাজেট ও মতবিনিময় সভা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে হাসান ইকবালের বার্তা ঠাকুরগাঁওয়ে মাদকসহ ২ ব্যবসায়ি গ্রেফতার বেনাপোল স্হলবন্দরে অনিদিষ্ট কালের জন্য পণ্য পরিবহন বন্ধ বাংলাদেশ দ্রুত শ্রীলংকায় পরিনত হতে যাচ্ছে মির্জা ফখরুল ইসলাম

বয়স্কভাতার টাকা আত্মসাৎ!

মো: আশরাফুল আলম
  • সময় : মঙ্গলবার, ২ জুন, ২০২০
  • ১৪৩ জন পড়েছেন

স্টাফ রিপোর্টারঃ এক বছর আগে মারা গেছেন আফসার আলী। তার নামে একটি বয়স্কভাতার কার্ড রয়েছে। যে কার্ডের টাকা এখনও নিয়মিত উত্তোলণ করে চলেছেন সেই মৃত ব্যক্তির পুত্র দুলাল মিয়া। তিনি সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার খাসরাজবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নং ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য। গত ৭ মে তেও তিনি তার মৃত পিতার টাকা উত্তোলণ করেছেন। একই কায়দায় তিনি তার ওয়ার্ডের মৃত আবুল কাশেম বই নং-৪০১ হিসাব নং-৪৩১, দেহারন বই নং- ৪৫ হিসাব নং-১১ সহ অনেক মৃতব্যক্তির নামে বরাদ্দকৃত বয়স্ক, বিধবা অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধীর নামের টাকা যথারীতি উত্তোলণ করে আত্মসাৎ করেছেন।
গত বৃহস্পতিবার ওই ওয়ার্ডের ভাতাভোগী মৃত দিল রওশন (বই নং-২৪৬ , হিসাব নং- ৩০৪) এর ভাইপো রফিকুল ইসলাম এ বিষয়ে কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বরাবর একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
একই বিষয়ে অভিযোগ রয়েছে ওই ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে। বয়স্ক ভাতা ভোগী মৃত খোশবার আলীর পুত্র চান মিয়া ওই ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন। তিনি অভিযোগে উল্লেখ করেন, ইউপি সদস্য চান মিয়া তার মৃত পিতার নামে ইস্যুকৃত ভাতা বই অফিসে ফেরৎ দেবার নাম করে নিয়েছেন। কিন্তু সম্প্রতি তিনি খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন অফিসে বই জমা না দিয়ে সেই বইয়ের মাধ্যমে ভাতার টাকা ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলাম উত্তোলণ করছেন। তিনি তার লিখিত অভিযোগে আরও উল্লেখ করেন ভাতাভোগী মৃত সাহেব আলী বই নং- ৪০৭, হিসাব নং- ৪৫১, সুকিতন বই নং- ১৭০ এবং হিসাব নং- ২৮ এবং অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী মৃত কুব্বাত আলী বই নং- ৪, হিসাব নং- ৪৬ এর নাম উল্লেখ করেছেন। উল্লিখিত নামের সবাই মারা গেছেন। কিন্তু ইউপি সদস্য তাদের নামে ইস্যুকৃত বইগুলো অফিসে জমা দেবার নাম করে নিয়ে নিয়মিত বইগুলির নামের বরাদ্দকৃত টাকা উত্তোলণ করে আত্মসাৎ করছেন।
অভিযোগ অস্বীকার করে ওই দুই ইউপি সদস্য জানান, যারা মারা গেছে তাদের নামের বইগুলো উপজেলা সমাজসেবা অফিসে জমা দিয়েছেন। কোন টাকা উত্তোলণ করেননি বলেও তারা দাবী করেন। তবে ইউপি সদস্য দুলাল মিয়া নিজের মৃত পিতার ভাতার টাকা উত্তোলণের কথা স্বীকার করেছেন।

এ বিষয়ে কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হাসান সিদ্দিকী অভিযোগ দুটি পাবার কথা স্বীকার করে জানান, ‘উপজেলা সমাজসেবা অফিসারকে তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দিতে বলেছি।’
কাজিপুর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলাউদ্দিন জানান, ‘তথ্যগুলো যাচাই বছাই চলছে। শীঘ্রই প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে।’

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা