1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. nasimriyad24@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৩৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম
নাগরপুরে পূজা উদযাপন পরিষদের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ সম্ভাবনা ও সুযোগে পরিপূর্ণ একটি দেশ: জেনেভায় ভূমিমন্ত্রী ১৫ দফা দাবি মেনে নেওয়াই কাভার্ডভ্যান-ট্রাক মালিক-শ্রমিকদের ধর্মঘট প্রত্যাহার নাগরপুরে মাসকলাই বীজ ও সার বিতরণ দূর্গা পুজার শুভেচ্ছা হিসাবে ভারতে প্রথম চালানে ২৩.১৫ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানি ঠাকুরগাঁও বালিয়াতে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে চাষীদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ উদ্বোধন। নড়াইলে হত্যা মামলার প্রধান আসামি ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৩ যুক্তরাষ্ট্র আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় এস, এম, গোলাম রব্বানী চৌধুরী জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অর্জন করায় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন মোঃ ইদ্রিস ফরাজী

কালিয়ায় ৬ মাসেও মিলছে না পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ, ভৌতিক বিলে গ্রাহক হয়রানির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
  • সময় : মঙ্গলবার, ৩০ জুন, ২০২০
  • ১১৪ জন পড়েছেন

নড়াইলের কালিয়ায় পল্লীবিদ্যুৎ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ভুতুড়ে বিলসহ নানা ভাবে গ্রাহক হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। নতুন সংযোগ পেতে জামানতের টাকা জমা দেয়ার ৬মাসেও সংযোগ মিলছেনা বরং মাসের পর মাস ঘুরিয়ে গ্রাহক হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে। এছাড়া করোনা কালে ভৌতিক বিলের কারণে গ্রাহকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।
দেশের প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী নতুন সংযোগ পাওয়ার ক্ষেত্রে জামানতের টাকা জমা নেয়ার পর ৭ দিনের মধ্যে নতুন সংযোগ স্থাপন বা আবেদনকারির প্রতিকার পাওয়ার কথা থাকলেও উপজেলার শীতলবাটি গ্রামের নূর আলী অভিযোগ, তিনি রাইস মিলে বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়ার জন্য গত বছর ২৯ ডিসেম্বর কালিয়া পল্লীবিদ্যুৎ অফিসে ১৮হাজার ৪০০টাকা জমা দিয়েছেন। সব কার্যক্রম সঠিক ভাবে সম্পন্ন করার পরও তিনি গত ৬মাসেও রহস্য জনক কারণে সংযোগ পাননি।

উপজেলার কলাবাড়িয়া গ্রামের রাসেল শেখ অভিযোগ, বকেয়া বিলের কারণে তার বিদ্যুৎ সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করা হলে তিনি বকেয়া বিল পরিষোধ করে গত ২৫ মার্চ পূণঃসংযোগ ফিসহ আবেদন করলেও তিন মাস ধরে তদবিরের পর গত ১৮জুন তার সংযোগটি পূণঃস্থাপন করতে পেরেছেন।

অপরদিকে, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের কাছ থেকে বিদ্যুৎ বিল আদায়ের ক্ষেত্রে গত ফেব্রুয়ারী মাস থেকে সরকার কর্তৃক বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব মাশুল মৌকুফ করাসহ বিদ্যুৎ বিল আদায়ে গ্রাহকদের হয়রানি না করার নির্দেশ উপক্ষো করে ডিজিএম মমিনুর রহমান গত মার্চ মাসের পরিষোধিত বিল মে মাসের বিলের সঙ্গে বকেয়া ও বিলম্ব মাসুলসহ যুক্ত করে গ্রাহকদের মারাত্মক হয়রানি করছেন বলে গ্রাহকদের অভিযোগ রয়েছে। উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে কালিয়ায় এসে ভৌতিক বিল সংশোধন করতে গ্রাহকদের সীমাহীন দুভোর্গে পড়তে হচ্ছে। বর্তমান ডিজিএম মো. মমিনুর রহমান বিশ্বাস কালিয়ায় যোগদানের পর ওইসব অনিয়ম ও গ্রাহক হয়রানি বেড়ে গেছে বলে ভুক্তভোগী অধিকাংশ গ্রাহকদের অভিযোগ।

এ বিষয় কালিয়া পল্লী বিদ্যুৎ কার্যালয়ের ডিজিএম মো. মমিনুর রহমান বিশ্বাস বলেন, ‘২০২১সালের ডিসেম্বর মধ্যে সরকারের ঘোষণানুযায়ী কালিয়া উপজেলাকে শতভাগ বিদ্যুতায়ন করা হবে। তবে বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য যাবতীয় কাগজপত্র ও টাকা জমা দেয়ার পরও কেন ৭ মাসেও সংযোগ দেয়া হচ্ছেনা ? এ প্রশ্নের উত্তরে, তিনি কোন সন্তোষজনক জবাব না দিয়ে মুঠোফোন কেটে দেন।’

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা

You cannot copy content of this page