1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. nasimriyad24@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
সোমবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ০১:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম
রাজশাহী মহানগর আ’লীগের শান্তি সমাবেশ ও মিছিল দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে বাগমারার নির্বাচনী প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত ঠাকুরগাঁওয়ে ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা পেলেন আ.লীগের মনোনয়ন জেলা রির্টানিং অফিসে অভিযোগ দিলেন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ঠাকুরগাঁওয়ে “১৯৭১ সেই সব দিন” চলচিত্র প্রদর্শনী বিষয়ে প্রেস ব্রিফিং আব্দুর রহমান দলের টিকিট নিয়ে নির্বাচনী এলাকায় প্রবেশ মুখে জনতার উচ্ছ্বাস নুসরাত এর পাশে ঠাকুরগাঁওয়ে মানবতার ফেলিওয়ালা পুলিশ সুপার উত্তম প্রসাদ পাঠক এমপির আওয়ামী লীগ হবে না, আওয়ামী লীগের এমপি হবে: আসাদ রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তাদের হাতে তুলে দেয়া হলো অভিধান ইন্ডিয়ান টেকনিক্যাল অ্যান্ড ইকোনমিক কোঅপারেশন দিবস উদযাপিত নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন নৌকার মাঝি দারা

গার্লফ্রেন্ডের চুমু খেয়ে করোনায় আক্রান্ত হলো যুবক

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ২৫ জুন, ২০২০
  • ৪৫৮ জন পড়েছেন

সংবাদ ডেস্কঃ প্রেমিকার সাথে দেখা করেছিল গাজীপুরের সেলিম। প্রেমিকার বাসা মিরপুরে। সদূর গাজীপুর থেকে তিনশোটাকা ভাড়া দিয়ে প্রেমের টানে ছুটে গিয়েছিল সেলিম।

সেলিমের সাথে সঙ্গ দিতে গিয়েছিলো তার হাফপ্যান্ট পড়ুয়া দুই বন্ধু কাওসার আহমেদ আর পলাশ দাস। স্বাস্থ্যব্যাধি মেনে বন্ধু সেলিমের ডেইটে গিয়ে ফেসে গেছে দুই বন্ধু। এ যেন মরার উপর খাড়ার ঘা।

সেলিমের বাসার লোকজন জানায় দুই দিন ধরে করোনার লক্ষণ দেখা যায়। আর তাতেই তারা ভয় পেয়ে সেলিমকে করোনা টেস্ট করায়। টেস্টের ফলাফল আসে আরো তিনদিন পড়ে। ফলাফল দেখা যায় সেলিম করোনায় আক্রান্ত।

সেলিম কিভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে তা যেন তার বাসার কেউ বুঝতে পারছে না। সেলিমের কাজিন শতক খান এই রিপোর্ট দেখে রীতিমতো অবাক হয়ে যায়। তিনি বলেন, হারামজাদা সেলিম তো সারাদিন বাসায় ছিল। কিভাবে আক্রান্ত হলো, কে আক্রান্ত করলো তার কিছুই বুঝে উঠতে পারছে না।

এই খবর সেলিমের বাবা মা কিছুতেই নিতে পারছেন না।ছেলের খবর শোনে সেলিমের মা দুশ্চিন্তায় পড়ে গেছেন।

সেলিমকে অনেক চাপাচাপি করার পর অবশেষে সেলিম এই বিষয়ে মুখ খুলতে বাধ্য হয়।

সেলিম বলে, ভাই আমার গফ করোনায় আক্রান্ত ছিল কিন্ত সে আমাকে বলে নি। আমি উত্তেজনায় তাকে চুমু খেয়ে বসি। এখন আমি করোনায় আক্রান্ত। এখন আমার কি হবে ভাই? আমাকে বাঁচান…………

এইটুকু বলে সেলিম আমাদের জড়িয়ে ধরে হাউমাউ করে কাঁদতে আসে।

আমাদের রিপোর্টার করোনা আক্রান্ত সেলিম থেকে নিরাপদ দূরত্ব চলে আসে।

সেলিমের করোনা আক্রান্ত হবার শোনে তার দুই বন্ধু কাওসার ও পলাশ খুবই ভেঙ্গে পড়ছে। তারা খাওয়া দাওয়া ছেড়ে দিয়েছে প্রায়। রুমের দরজা খুলছে না।কারো সাথে কথা বলছে না।

ফেইসবুকে আবেগী স্ট্যাটাস দিয়ে নিজেদের ক্ষমা করার জন্যে অনুরোধ করেছে তারা।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা

%d bloggers like this: