1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. nasimriyad24@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম

৮ বাংলাদেশী নারীকে হস্তান্তর করলো ভারত

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৭৭ জন পড়েছেন

মোঃ সাহিদুল ইসলাম শাহীন,বেনাপোল(যশোর):- পার্শ্ববর্তীদেশ ভারতে পাচার হওয়া আট বাংলাদেশি নারীকে বেনাপোল চেকপোস্টে হস্তান্তর করলো ভারত।
সোমবার (৩০ নভেম্বর) বিকেল ৫টার দিকে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে আসা বাংলাদেশের বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

হস্তান্তরকৃত নারীরা হলেন, খাগড়াছড়ি জেলার আব্দুল বাতেনের মেয়ে হাজিরা খাতুন, যশোর জেলার আব্দুর রহমানের মেয়ে সালমা খাতুন, আয়ুব আলীর মেয়ে হাজিরা খাতুন, শাখাওয়াত আলী বিশ্বাসের স্ত্রী মাজেদা খাতুন, পটুয়াখালী জেলার হাকিম আলী হাওলাদারের স্ত্রী রেখা বেগম, মাগুরা জেলার তোরাপ বিশ্বাসের মেয়ে রিয়া বিশ্বাস, নারায়ণগঞ্জ জেলার আব্দুল আজিজের মেয়ে আখি মন্ডল ও চুয়াডাঙ্গা জেলার রতন মন্ডলের মেয়ে রানী মালিথা।

ভারত থেকে ফেরত আসা নারীদের বেনাপোল থেকে গ্রহনকারী যশোর রাইটস এর তথ্য অনুসন্ধান কর্মকর্তা তৌফিকুর জানান, ভুক্তভোগী নারীরা ভালো কাজের আশায় বিভিন্ন সময় দালালের প্রলোভনে পড়ে দেশের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাচার হয়। পরে এরা সেদেশের পুলিশের হাতে আটক হয়। পরবর্তীতে ভারতের বোম্বে রেসকিউ ফাউন্ডেশন নামে একটি বেসরকারি এনজিও সংস্থা তাদেরকে ছাড়িয়ে নিয়ে তিন বছর নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। পরে দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ে চিঠি চালাচালির মাধ্যমে এদেরকে ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বাংলাদেশে হস্তান্তর করা হয়।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, ফেরত আসা ৮ নারীকে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে আমাদের কাছে হস্তান্তর করে। কাগজ পত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে এদেরকে জাস্টিস এন্ড কেয়ার পাঁচ জন ও যশোর রাইটস তিন জনকে এ দুটি এনজিও সংস্থা তাদেরকে গ্রহন করেছে। পরবর্তীতে এনজিও সংস্থা গুলি তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করবে বলে তিনি জানান।

প্রেরক:- মোঃ সাহিদুল ইসলাম শাহীন
বেনাপোল প্রতিনিধি
শার্শা,যশোর।
মোবাইল:-০১৭৯১৩১২১১১।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশেষ সংখ্যা