1. admin@protidinershomoy.com : admin :
  2. protidinershomoy@gmail.com : Showdip : Meherabul Islam সৌদিপ
  3. mamunshohag7300@gmail.com : মামুন সোহাগ : মামুন সোহাগ
  4. nasimriyad24@gmail.com : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১, ০১:৩৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
সলঙ্গায় ছাত্রলীগের সভাপতি পদে না থেকেও প্রচারনার ব্যানারে সাবেক সভাপতি পদ ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে মিজানুর রহমান রাসেলের বিরুদ্ধে ঠাকুরগাঁওয়ে ২,০৩২ পিজ ইয়াবা সহ ২ জন আটক ঠাকুরগাঁওয়ে বাস্কেটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন ঠাকুরগাঁওয়ে শীতবস্ত্র পেয়ে ৩০০ শত হতদরিদ্র মানুষের মুখে হাসি, নাগরপুরে ৩০ পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর বাড়ি উপহার মুজিববর্ষ উপলক্ষে নাগরপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা হঠাৎ রাতে কম্বল হাতে ছিন্নমূল মানুষের পাশে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা বরগুনা জেলার আমতলির কৃতি সন্তান এ এস শ্যামল বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জর্ডান এর আহব্বায়ক নির্বাচিত এম এ রব মিন্টুর নেতৃত্বে রাষ্ট্রদূতের সাথে ইতালি আওয়ামী লীগের সৌজন্য সাক্ষাৎ জনগণকে সচেতন করতে একজন ওসি’র বিরামহীন ছুটে চলা !

রাজশাহীতে যুবলীগ কর্মী রাসেলের মৃত্যু বার্ষিকী পালিত, দোষীদের দ্রুত বিচার দাবি

সংবাদ দাতার নাম
  • সময় : শনিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ৪৫ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীতে যুবলীগ কর্মী সানোয়ার হোসেন রাসেলের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী পালন করেছে বোয়ালিয়া পূর্ব আওয়ামী লীগ এবং সেই সাথে দোষীদের দ্রুত বিচার দাবি জানিয়েছেন তারা।

১৩ নভেম্বর বাদ আছর রাজশাহী পুরাতন রেল ষ্টেশন এলাকায় নিহত রাসেলের বাসভবনে আয়োজিত মৃত্যু বার্ষিকীতে মিলাদ মাহফিল, দোয়া খায়েরসহ কোরআন তিলায়াত ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

এ সময় বোয়ালিয়া থানা (পূর্ব) আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন রাজা, মহানগর যুবলীগের সভাপতি রমজান আলী ও আওয়ামীলীগের স্থানীয় নেতাকর্মীসহ প্রায় দেড় হাজার এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, রাজশাহী রেল আঙ্গিনায় খুন হন মহানগর যুবলীগ কর্মী সানোয়ার হোসেন রাসেন (৩০)। গত বছর ১৩ ই নভেম্বর দুপুরে রেলভবনের সামনে নির্মমভাবে খুন হন রাসেল। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য রামেক হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রসঙ্গত, গত বছর ১৩ নভেম্বর রাজশাহী রেলওয়ে ভবনে কিছু দুষ্কৃতিকারীর ছুরিকাঘাতে বোয়ালিয়া পূর্ব আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক আনোয়ার হোসেন রাজা ও তার ছোট ভাই সানোয়ার হোসেন রাসেন নির্মমভাবে আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার রাসেলকে মৃত ঘোষণা করেন। তাৎক্ষনিক উন্নত চিকিৎসা দেওয়ায় প্রাণে বেঁচে যান আনোয়ার হোসেন রাজা। সেদিনই নিহত রাসেলের ভাই মনোয়ার হোসেন রনি বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে ২৫ জনকে আসামী করে মামলাটি দায়ের করলেও অজ্ঞাত কারণে ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছে অনেকেই।

এ বিষয়ে নিহত যুবলীগ কর্মী সানোয়ার হোসেনেরর বড়ভাই ও বোয়ালিয়া পূর্ব আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন রাজা বলেন, মামলার প্রধান আসামীদের এখনো ধরা হয়নি। পুলিশ প্রভাবিত হয়ে মুল আসামীদের বাঁচানোর চেষ্টা করছে। ইতোমধ্যে আমরা পুলিশের প্রতিবেদনের বিপক্ষে না রাজি প্রদান করেছি। তিনি আরও বলেন, আমি সহ আমার পরিবার এখন হতাশ। আদৌ কি আমি ন্যায় বিচার পাবো নাকি আইনের ফাঁক গলিয়ে আসামীরা বেঁচে যাবে। তবে তিনি এ সময় আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারসহ কঠোর শাস্তিও দাবি করেন।

সংবাদটি আপনার সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরোও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page